‘যতদিন করোনার দুর্যোগ থাকবে, ততদিন মানুষের পাশে থাকব’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: করোনাভাইরাস সংক্রমণের এই দুর্যোগময় পরিস্থিতি যতদিন থাকবে, ততদিন মানুষের পাশে থাকার প্রত্যয় জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া। বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন, এই মহামারিতে মানুষের পাশে থাকতে হবে। তাই করোনার দুর্যোগ যতদিন থাকবে, ততদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ও আওয়ামী লীগ দেশের মানুষের পাশে থাকবে।

বুধবার (৫ মে) বিকেলে রাজধানীর ধানমন্ডিতে পবিত্র মাহে রমজান ও করোনারভাইরাস সংক্রমণের লকডাউন পরিস্থিতিতে অসহায় মানুষের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে ঢাকা মহানগর আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তাসবীরুল হক অনুর উদ্যোগে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন মানুষের মাঝে রান্না করা খাবার ও ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এসময় জানানো হয়, যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো. মাইনুল হোসেন খাঁন নিখিলের নির্দেশনায় প্রতিদিন চার থেকে পাঁচশ মানুষের মাঝে রান্না করা খাবার ও ইফতার সামগ্রী বিতরণ করে আসছেন অনু।

বুধবারের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিপ্লব বড়ুয়া। তিনি বলেন, এই করোনাকালে যুবলীগের তিন জন নেতাসহ আমাদের বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রায় ছয়শ নেতাকর্মী মারা গেছেন। কিন্তু যুবলীগ-ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ভয় পায়নি। করোনার প্রথম ঢেউয়ের সময় মায়ের লাশ ফেলে ছেলেরা পালিয়েছে। আতঙ্কের কারণে তখন লাশের দাফন হতো না। ওই সময়েও আমাদের যুবলীগ-ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মানুষের লাশ দাফনের দায়িত্ব কাঁধে নিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

করোনা মহামারিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের মানুষের পাশে মানবিক সহায়তা নিয়ে পাশে দাঁড়ানোর কথা বক্তব্যে তুলে ধরেন বিপ্লব বড়ুয়া। সরকারিভাবে অসহায় ও দুঃস্থ মানুষের পাশে খাদ্য ও নগদ অর্থ সহায়তা বিতরণের কথাও তুলে ধরেন তিনি।

বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা করনোকালীন যেসব নীতি ও পদক্ষেপ নিয়েছেন এবং যেভাবে সরকারি সহযোগিতার ব্যবস্থা করেছেন, তার মূল উদ্দেশ্য হলো— দেশের যেসব মানুষ করোনা সংক্রমণের কারণে ব্যবসা-বাণিজ্য বা কাজ হারিয়েছে, তাদের যেন এই দুর্যোগে পথে বসতে না হয়। প্রধানমন্ত্রীর লক্ষ্য ছিল, এই দুর্যোগে যেন কাউকে না খেয়ে দিন কাটাতে না হয়। বিজ্ঞাপন

‘দেশে কোনো খাদ্য সংকট নেই। রমজান ও লকডাউনের সময়ও দেশের মানুষ যেন খাদ্য সহায়তা পায়, সে ব্যবস্থা সরকার নিয়েছে। আমাদের দলের নেতাকর্মীরাও মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। এই দুর্যোগ যতদিন থাকবে, ততদিন বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ও আমাদের দল দেশের মানুষের পাশে থাকবে,’— বলেন বিপ্লব বড়ুয়া।

তিনি আরও বলেন, করোনা মহামারি একটি বৈশ্বিক সংকট। আজ বাংলাদেশের মানুষ যেমন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করছে, একইভাবে বিশ্বের ক্ষমতাধর রাষ্ট্রগুলোর মানুষও প্রাণ হারাচ্ছে। সেই তুলনায় বাংলাদেশে মৃত্যুর হার এখনো আমরা একটি সহনশীল পর্যায়ে রাখতে সমর্থ হয়েছি। আমাদের সরকারের গৃহীত নীতি ও পদক্ষেপের কারণে, রাজনৈতিক প্রজ্ঞা ও বিবেচনার কারণে আজ আমরা করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সক্ষম হয়েছি।

বিজ্ঞাপন

সবাইকে এ পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণের তাগিদ দিয়ে ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, আমাদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। এই করোনার দুর্যোগ এখনো পৃথিবী থেকে যায়নি এবং আগামীতে কোন পর্যায়ে আবার আমাদের মাঝে আতঙ্ক ছড়াবে, আমরা জানি না। তাই সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

অনুষ্ঠানে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সদস্য জয়সেন বড়ুয়াসহ মহানগর উত্তর যুবলীগ ও যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

সারাবাংলা/এনআর/টিআর

সর্বশেষ সংবাদ