২ সেপ্টেম্বরের পর একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত, মৃত্যু আরও ২৮ জনের

সারাবাংলা ডেস্ক

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির ধারা অব্যাহত রয়েছে। সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ৪১৯ জন। ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ছিল ১৫ দশমিক ০৬ শতাংশ। এ নিয়ে গত ছয় দিনের মধ্যে একদিন বাদে বাকি পাঁচ দিনই সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে দুই হাজারের বেশি। বিজ্ঞাপন

গত ২ সেপ্টেম্বরের পর একদিনে এত বেশি সংক্রমণও শনাক্ত হয়নি। ওই দিন ২ হাজার ৫৮২ জন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছিলেন সারাদেশে। কেবল শনাক্তের সংখ্যা নয়, গত ৫ সেপ্টেম্বরের পর ২৪ ঘণ্টায় নমুনা শনাক্তের হারও এত বেশি ছিল না।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণ নিয়ে মারা গেছেন আরও ২৮ জন। আগের দিনের চেয়ে এই সংখ্যা ১০ জন কম। আর গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ১৮৩ জন। বিজ্ঞাপন

সোমবার (২৩ নভেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানার সই করা কোভিড-১৯ সংক্রান্ত নিয়মিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ১১৭টি ল্যাবে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এসব ল্যাবে পরীক্ষার জন্য মোট নমুনা সংগ্রহ করা হয় ১৬ হাজার ২৪০টি। এর মধ্যে পরীক্ষা করা হয়েছে ১৬ হাজার ৫৯টি। এ নিয়ে সারাদেশে এখন পর্যন্ত মোট ২৬ লাখ ৬৫ হাজার ১৩১টি নমুনা পরীক্ষা করা হলো। বিজ্ঞাপন

গত ২৪ ঘণ্টায় যেসব নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে এর মধ্যে করোনা শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৪১৯টি নমুনায়। এ নিয়ে দেশে মোট করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হলেন ৪ লাখ ৪৯ হাজার ৭৬০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ০৬ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৮৮ শতাংশ। এর আগে, গত ৫ সেপ্টেম্বর নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ছিল ১৫ দশমিক ১৭ শতাংশ। এরপর আজকের আগ পর্যন্ত আর কোনো দিনেই নমুনা শনাক্তের হার ১৫ শতাংশ পেরোয়নি।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ১৮৩ জন। এ নিয়ে দেশে এ পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির মধ্যে ৩ লাখ ৬৪ হাজার ৬১১ জন সুস্থ হলেন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮১ দশমিক ০৭ শতাংশ। বিজ্ঞাপন

গত ২৪ ঘণ্টায় যে ২৮ জন করোনা সংক্রমণ নিয়ে মারা গেছেন, এ নিয়ে মোট মৃত্যু দাঁড়ালো ৬ হাজার ৪১৬ জনে। শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৩ শতাংশ। গত দিনে মৃত এই ২৮ জনের মধ্যে পুরুষ ২১ জন, নারী সাত জন। তাদের সবাই হাসপাতালে মারা গেছেন।

শেষ ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে ষাটোর্ধ্ব ২১ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী পাঁচ জন ও ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী রয়েছেন দুই জন। বিভাগভিত্তিক তথ্য বলছে, এই ২৮ জনের মধ্যে ২১ জনই ঢাকা বিভাগের। বাকিদের মধ্যে চট্টগ্রাম বিভাগের চার জন, রাজধানী বিভাগের দুই জন এবং একজন রয়েছেন সিলেট বিভাগের। বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/টিআর

সর্বশেষ সংবাদ