বার্সেলোনার কোচ হওয়ার জন্য তর সইছে না জাভির

আবারও বার্সার কোচ হওয়ার জন্য নিজের ইচ্ছের কথা জানিয়েছেন দলের সাবেক তারকা মিডফিল্ডার জাভি হার্নান্দেজ

ঘোরতর অনিশ্চয়তার মধ্যে দিয়ে কাটছে বার্সেলোনার দিন। সাবেক কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দেকে ছাঁটাই করে কিকে সেতিয়েনকে এনেও লাভ হয়নি। লিগ শিরোপাদৌড়ে পিছিয়ে পড়েছেন মেসিরা। রিয়াল মাদ্রিদ যদি সামনে পয়েন্ট না খোয়ায়, তাহলে এবার আর লিগ জেতা হবে না মেসি-সুয়ারেজদের।

তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে কোচিং দলের সঙ্গে মেসিদের রেষারেষির খবর। প্রতিপক্ষের মাঠে নিজেদের বাজে ফর্মের পেছনে কোচদের দায় দেখছেন সুয়ারেজ। সর্বশেষ সেল্টা ভিগোর মাঠ থেকে ড্র করে এসে ড্রেসিংরুমেই ম্যানেজারের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েছেন বলে শোনা গেছে। এমন অবস্থায় শোনা যাচ্ছে, হয়তো মৌসুম শেষেই ছাঁটাই করা হতে পারে সেতিয়েনকে। আর সেটা যদি করা হয়, তাহলে ক্লাবের সাবেক এক সন্তান আগ্রহভরে অপেক্ষা করে আছেন চাকরিটার জন্য।

তিনি আর কেউ নন, সাবেক মিডফিল্ডার জাভি হার্নান্দেজ। সেতিয়েন আসার আগে বার্সা এই জাভিকেই কোচ হিসেবে চেয়েছিল। জাভিই তখন রাজী হননি। কিন্তু এখন নিজের সাবেক ক্লাবের কোচ হতে তর সইছে না তাঁর, 'আমার এখন সবচেয়ে বড় ইচ্ছা বার্সেলোনার কোচ হওয়া, বার্সেলোনাকে সফল করা। আমি বার্সেলোনার মানুষ। আমার এখন ইচ্ছা ক্লাবে ফিরে আবার সবকিছু নতুন করে শুরু করা। আমি আগেও এ কথা অনেকবার বলেছি, আমি বার্সেলোনার কোচ হয়ে সিদ্ধান্তগুলো নিতে চাই।'

অথচ সেতিয়েনকে নিয়োগ দেওয়ার আগে জাভিই পছন্দ ছিল বার্সেলোনার। জাভির সঙ্গে দেখা করতে বার্সেলোনার প্রধান নির্বাহী অস্কার গ্রাউ আর টেকনিক্যাল ডিরেক্টর এরিক আবিদাল গিয়েছিলেন কাতারে। জাভি হার্নান্দেজ কাতারের আল সাদ ক্লাবের ম্যানেজার, তাঁর সঙ্গে দেখা করাই ছিল উদ্দেশ্য।

তবে সেবার আল সাদ সাফ জানিয়ে দিয়েছিল, জাভিকে ছাড়ার কোনো ইচ্ছে নেই তাদের। ক্লাবের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে পরিচালক তুর্কি আল-আলি জানিয়েছিলেন, 'জাভি যে তাঁর কোচিং ক্যারিয়ারের কোনো না কোনো পর্যায়ে বার্সেলোনায় ফিরতে চাইবেন, এটা জানা কথা। বার্সেলোনাই তাঁর প্রথম ভালোবাসা। তবে সেটা ভবিষ্যতের কথা। এখন তিনি আল সাদের কোচ। আর বার্সেলোনার ব্যাপারে বলব, তারা যথেষ্ট পেশাদার ও বড় ক্লাব বলেই জানি। আশা করি এ ব্যাপারে আলোচনার ক্ষেত্রে তারা আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া অবলম্বন করবে।'

জাভির এমন খোলাখুলি বক্তব্যের পর আল-সাদের কেমন লাগছে, কে জানে!

সর্বশেষ সংবাদ