স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজটা ভুলে যাওয়ার মতোই কাটল বাংলাদেশের। দুই টেস্টের দুটিতেই বাজেভাবে হেরেছে মুমিনুল হকের দল। দলীয় পারফরম্যান্সের পাশাপাশি সমালোচনা হচ্ছে মুমিনুল হকের অধিনায়কত্ব নিয়েও। তাছাড়া পারফর্ম করতে পারেননি সিনিয়র ক্রিকেটাররা। সামনেই ঘরের মাঠে শ্রীলংকা সিরিজ। ঘরের মাঠের ওই সিরিজেও বিপর্যয় হলে কি হবে? মুমিনুল হক বললেন, তিনি এসব নিয়ে ভয় করছেন না।

বিজ্ঞাপন

নিউজিল্যান্ডে গিয়ে দারুণ এক জয় পাওয়াতে এবারের দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ নিয়ে বাড়তি প্রত্যাশাই ছিল। তাছাড়া প্রোটিয়াদের সেরা আট ক্রিকেটার আইপিএলের কারণে অনুপস্থিত ছিলেন। কিন্তু প্রত্যাশার ছিটেফোটাও পূরণ হয়নি। মুমিনুলের বোলার ব্যবহার নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে রিভিউ না নেওয়াতে উইকেট  প্রাপ্তির সুযোগ হারিয়েছে বাংলাদেশ। মুমিনুলকে টেস্ট অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হবে কিনা সেই প্রশ্নও উঠছে।

দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ শেষে তিন ধাপে দেশে ফিরবেন বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা। আজ বুধবার (১৩ এপ্রিল) প্রথম ধাপে অন্য ক্রিকেটারদের সঙ্গে দেশে ফিরেছেন মুমিনুল। বিমানবন্দরে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জানালেন, পরবর্তী সিরিজে ঘুরে দাঁড়ানো নিয়েই আপাতত ভাবছেন। বিজ্ঞাপন

হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে মুমিনুল বলেন, ‘আমি যদি নেতিবাচক চিন্তা করি, আমার কাছে মনে হবে আমি ভীরু। ওরকম চিন্তা করলে… দেখুন, আগে জিতে যখন ফিরেছি, তখন এসেছি এই জায়গায়। আমি যদি ভীতু হতাম বা আমার মধ্যে যদি ভয়-ভীতি থাকত, এই সিরিজের পর প্রেস কনফারেন্সে আসতাম না। আমি যেরকমই ছিলাম, সেরকমই আছি। আমার কাছে যেটা গুরুত্বপূর্ণ, এই সিরিজে যে ভুল করেছি, পরের সিরিজে যেন না করি। পুনরাবৃত্তি হলে সেটা দেখার বিষয়।'

অনেকদিন যাবত অফফর্মে থাকা মুমিনুল এই সিরিজের দুই টেস্ট মিলিয়ে চার ইনিংসে রান করতে পেরেছেন মাত্র ১৩টি। নিজের অফফর্ম প্রশ্নে টেস্ট অধিনায়ক বলেন, ‘রুট (ইংল্যান্ডের টেস্ট অধিনায়ক) কিন্তু গত এক বছরে ৬-৭টা সেঞ্চুরি করেছে। তারপরও তার ওপর চাপ আছে। অধিনায়কত্ব এমন একটা জিনিস যেখানে আপনি পারফর্ম না করলে চাপ আসবেই। আর এই লেভেলে অধিনায়কত্ব করলে চাপ নিতে হবে। এসব নিয়ে আমি চিন্তিত না। চাপ আসা মানে আপনার বিকাশ হওয়া, যেটা আমি বিশ্বাস করি। আপনি যত চাপ নিবেন, আপনার খেলা তত উন্নতি হবে।’

বিজ্ঞাপন

ইদের পর আগামী ৮ মে বাংলাদেশ সফরে আসবে শ্রীলংকা ক্রিকেট দল। সফরে দুটি টেস্ট খেলবেন লংকানরা। দুই ম্যাচের এই সিরিজটি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ। সেই সিরিজে ঘুরে দাঁড়ানোর বার্তা দিলেন মুমিনুল, ‘পরিকল্পনা তো অবশ্যই আছে (ঘুরে দাঁড়ানোর)। সবাই চিন্তা করে এসব নিয়ে। এমন না যে এই প্রথম আমরা এই পরিস্থিতিতে পড়েছি। আগেও অনেক পড়েছি। বেরও হয়েছি এখান থেকে। আমরা জানি কীভাবে এখান থেকে বের হতে হবে।'

সারাবাংলা/এসএইচএস