স্টার্লিংয়ের পেনাল্টি মিসের পরেও সিটির জয়

স্পোর্টস ডেস্ক

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ এবার অন্যন্য মৌসুমের তুলনায় আরও বেশি প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ। গতকালই লিভারপুলকে টপকে শীর্ষে উঠে এসেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। থেমে নেই ইউনাইটেডের নগরপ্রতিদ্বন্দ্বি ম্যানচেস্টার সিটিও। লিভারপুলের থেকে এক ম্যাচ কম খেলে মাত্র এক পয়েন্টে পিছিয়ে তিনে অবস্থান সিটিজেনদের। বুধবার রাতে ঘরের মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ফিল ফোডেনের একমাত্র গোলে ব্রাইটনকে হারিয়ে তিনে উঠে এসেছে ম্যানচেস্টার সিটি।

বিজ্ঞাপন

ঘরের মাঠে টেবিলের তলানির দিকে থাকা ব্রাইটনের বিপক্ষেও কোনো প্রকার ঝুঁকি নেননি পেপ গার্দিওলা। নিজের সেরা একাদশ নিয়েই ব্রাইটনকে আতিথ্য দেয় সিটি। ম্যাচের স্কোরলাইন দেখে বোঝার কোনো উপায় নেই সিটি আসলেই হেসেখেলে জিতেছে। এর ওপর আবার ম্যাচের শেষ মুহূর্তে রহিম স্টার্লিং পেনাল্টি মিস করে দলের জয়ের ব্যবধান বাঁড়াতে ব্যর্থ হন।

ম্যাচের প্রায় ৬৫ শতাংশ বল নিজেদের দখলে রেখে ১৩টি গোলের সুযোগ তৈরি করে সিটি, যার ভেতর চারটি ছিল বেশ বড়সড় সুযোগ। খেলার ১৪ মিনিটেই লিড নিতে পারত সিটি, গুন্দোয়ানের বাড়ানো বল ডি-বক্সের ভেতর পেয়ে ডান পায়ে জোরালো শট নেন কেভিন ডি ব্রুইন। তবে বাধা হয়ে দাঁড়ান ব্রাইটন গোলরক্ষক সানচেজ। এরপর ৪১ মিনিটের মাথায় ফিল ফোডেনের বাড়ানো বল ধরে আক্রমণ করেন ডি ব্রুইন তবে এবারেও বাধা ওই সানচেজ।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু আর বেশি সময় অপেক্ষা করতে হয়নি। প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে ব্রাইটনের জমাট বাধা রক্ষণ ভাঙেন ফিল ফোডেন আর সিটি লিড নেয় ১-০'তে। ম্যাচের ৪৪ মিনিটের মাথায় ডি ব্রুইন ডি-বক্সের ভেতর ফোডেনকে খুঁজে বল পাঠিয়ে দেন। আর সেখান থেকে দুই ব্রাইটন ডিফেন্ডারকে বোকা বানিয়ে বল জালে জড়ান এই ইংলিশ ফরোয়ার্ড।

বিরতি থেকে ফিরে দ্বিতীয়ার্ধেও নিজেদের আক্রমণাত্মক খেলা ধরে রাখে সিটি। ৫৯ মিনিটে দ্বিতীয় গোলের খুব কাছে পৌঁছেও ব্যর্থ হয় সিটিজেনরা। গুন্দোয়ানের বাঁকানো শট দক্ষতার সঙ্গে ফিরিয়ে দেন ব্রাইটন গোলরক্ষক সানচেজ। আর ফিরতি বল থেকে ব্রার্নার্দো সিলভার দুর্দান্ত শট ফিরে আসে গোলপোস্টে লেগে। বিজ্ঞাপন

ম্যাচের ৯১ মিনিটে ডি ব্রুইনকে অবৈধভাবে ফেলে দেওয়ায় পেনাল্টি পায় সিটি। তবে স্পট কিক থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন ইংলিশ ফরোয়ার্ড রহিম স্টার্লিং। আর তাতেই শেষ পর্যন্ত ১-০ ব্যবধানের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় ম্যানচেস্টার সিটিকে।

এই জয়ে প্রিমিয়ার লিগে ১৬ ম্যাচে  ৯টি জয়, ৫টি ড্র আর দুটি হারে ৩২ পয়েন্ট নিয়ে তিনে সিটি। অন্যদিকে ১৭ ম্যাচে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড আর সমান ম্যাচে ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল। বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএস

সর্বশেষ সংবাদ